নিষিদ্ধ নাকি নিষেধ, এই দুইয়ের মধ্যে কোনটি সঠিক বানান সেটা নিয়ে অনেকেই দ্বিধায় পড়ে যান।
লেখার সময় সংশয়ের মাত্রা আরও বাড়ে। প্রতিনিয়ত আমাদের চারপাশে এগুলোর ভুল ব্যবহার আমাদেরকে আরও সংশয়ে ফেলে দেয়, বিশেষ করে সংবাদপত্রে ভুল প্রয়োগ। প্রথমে জানা জরুরি যে, দুটিই সঠিক নাকি একটি ভুল। চলুন জেনে নিই দুটিই সঠিক নাকি একটি সঠিক।

নিষিদ্ধ—‘নিষিদ্ধ’ শব্দটি বিশেষণ। নিষিদ্ধ অর্থ—বারণ করা হয়েছে এমন। বাক্যে বিশেষণ পদ হিসেবে ব্যবহারের প্রয়োজন হলে ‘নিষিদ্ধ লিখতে হবে।
দৃষ্টান্ত :
১. নিষিদ্ধ জিনিসের প্রতি মানুষের কৌতূহল বরাবরই বেশি।
২. নিষিদ্ধ পল্লিতে রাতে মানুষের অবাধ বিচরণ থাকে।
৩. তিব্বত একটি নিষিদ্ধ দেশ।
৪. টিএসসিতে ধূমপান নিষিদ্ধ।

নিষেধ—‘নিষেধ’ শব্দটি বিশেষ্য। নিষেধ মানে বারণ।
বাক্যে বিশেষ্য পদ হিসেবে ব্যবহারের প্রয়োজন হলে ‘নিষেধ ’লিখতে হবে।
দৃষ্টান্ত :
১. সে আমার নিষেধ শোনেনি।
২. বিধিনিষেধের কারণে চাল আমদানি বন্ধ আছে।
৩. এখানে আবর্জনা রাখা নিষেধ।
৪. ওকে বাইরে যেতে নিষেধ করো।

এমন কিছু বাক্য আছে যেখানে নিষিদ্ধ বসবে না নিষেধ বসবে সেটা বোঝা খুবই সূক্ষ্ম। এই ধরনের বাক্যে আগে ক্রিয়াপদ থাকলে তারপরে সাধারণত নিষেধ বসে। নিষিদ্ধ ও নিষেধ উভয়ই তৎসম শব্দ এবং আপনি প্রয়োজন অনুযায়ী দুটোই ব্যবহার করতে পারবেন, কোনো সমস্যা নেই

সুপ্রিয় পাঠক, নিষিদ্ধ নাকি নিষেধ, কোনটি সঠিক বানান বা কোনটি লিখবেন সেটা বুঝতে পেরেছেন আশা করি।