ফোঁটা নাকি ফোটা, কোনটি সঠিক বানান সেটা নিয়ে অনেকেই সংশয়ে পড়ে যান।
উপরিউক্ত শব্দ দুটির উচ্চারণ একই হলেও অর্থের ব্যাপক পার্থক্য রয়েছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক এদের পার্থক্য।

ফোঁটা—ফোঁটা শব্দের অর্থ হচ্ছে তরল পদার্থের বিন্দু,  বিন্দুচিহ্ন, তাসের চিহ্ন।
উপরিউক্ত অর্থে ফোঁটা শব্দটি ব্যবহৃত হবে।
দৃষ্টান্ত :
১. ”ডাক্তার সাহেব, তুমি আমার জন্য দুফোঁটা চোখের জল ফেলেছ—তার প্রতিদানে আমি জনম জনম কাঁদিব।”
২. ভাইফোঁটা দিবসে বোন ভাইয়ের কপালে ফোঁটা দেয়।
৩. ঘরের চালা দিয়ে ফোঁটা ফোঁটা বৃষ্টি পড়তে লাগল।
৪. লোকটি তাস হাতে নিয়ে ফোঁটা গুনতে শুরু করল।

ফোটা—ফোটা শব্দের অর্থ হচ্ছে পরিস্ফুটিত হওয়া, উদিত হওয়া, সেদ্ধ হওয়া, উন্মীলিত হওয়া, ধ্বনিত হওয়া, বিদ্ধ হওয়া, বিস্ফোরিত হওয়া।
উপরিউক্ত অর্থে ফোটা শব্দটি ব্যবহৃত হবে।
দৃষ্টান্ত :
১. ফুল ফোটার মোহনীয় সৌন্দর্য সবার চোখে পড়ে না।
২. নারীরা মুখ ফুটে অনেক কিছুই বলতে পারে না।
৩. তার মুখে যেন খই ফোটে।
৪. অন্ধকার ভেদ করে আলো ফুটল।
৫. ভাত ফুটেছে কি না তা দেখার জন্য মা কয়েকটি ভাত হাতে নিয়ে দেখলেন।
৬. বাচ্চাটির মুখে কথা ফুটেছে।
৭. আমার পায়ে কাঁটা ফুটেছে।
৮. বাজি ফোটাতে গিয়ে তুহিনের গায়ে আগুনের ফুলকি লেগেছে।

মনে রাখার কৌশল : ফোঁটা মানে বিন্দু তাই ফোঁটা বানানে চন্দ্রবিন্দুর ফোঁটা আছে।

সুপ্রিয় পাঠক, ফোঁটা নাকি ফোটা, কোনটি কোথায় লিখবেন তা নিয়ে আর সমস্যা নেই আশা করি।